কুড়িগ্রামের সীমান্তবাসী ভারতীয় বন্য হাতির তান্ডবে অসহায়

কুড়িগ্রামের সীমান্তবাসী ভারতীয় বন্য হাতির তান্ডবে অসহায়

রাঙা প্রভাত ডেস্ক :- কুড়িগ্রামের রৌমারী ও রাজিবপুর উপজেলার সীমান্তে ভারতীয় বন্য হাতির তান্ডবে অতিষ্ট হয়ে পড়েছে সীমান্তবাসী। বিএসএফ কাঁটাতারের গেট খুলে দেয়ায় প্রতিদিন হাতি বাংলাদেশে প্রবেশ করে পাঁকা ধানের ক্ষেত নষ্ট করছে।

হাতির অব্যাহত তান্ডবে সীমান্তবাসী আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। কুড়িগ্রামের রৌমারী সীমান্তেও ভারতীয় বন্য হাতির তান্ডবে স্বীকার হচ্ছেন সীমান্তবাসী। এদিকে গেল এক সপ্তাহ ধরে হাতির তান্ডবে শেষ সম্বল পাঁকা ধান রক্ষা করতে না পেরে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়ছেন সীমান্তের কৃষক।

মঙ্গলবার দিনের বেলায় ২৬টি ভারতীয় বন্য হাতির একটি দল রৌমারী সদর ইউনিয়নের বড়াইবাড়ী গ্রামে চষে বেড়াচ্ছিল। ফলে সদর ইউনিয়নের বড়াইবাড়ি, চুলিয়ারচর ও ঝাউবাড়ি এবং যাদুরচর ইউনিয়নের পাহাড়তলী বিক্রিবিল দক্ষিণ আলগারচর, খেওয়ারচর, বকবান্ধাসহ ৮টি গ্রামের হেক্টরের পর হেক্টর পাঁকা ধান ক্ষেত তছনছ করছে এই হাতির দল।

রৌমারী উপজেলা কৃষি অফিসার শাহরিয়ার হোসেন জানান, বন্য হাতির দল এ পর্যন্ত ৪০ জন কৃষকের ২৫ হেক্টরের মতো পাঁকা ধানক্ষেত নষ্ট করেছে। এ অবস্থায় হাতির দল সরে যাওয়ার সাথে সাথে ধান কেটে নিচ্ছেন কৃষকরা।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল ইমরান বলেন, সন্ধ্যায় এক দল ঢুকছে এবং সকালে চলে যাচ্ছে। আবার সকালে আসছে আরেক দল। বিএসএফ কাঁটাতারের বেড়ার গেট খুলে দেওয়ায় হাতির দলগুলো একের পর এক বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ঢুকে ফসল নষ্ট করছে। এজন্য চোখে টর্চ লাইটের আলো ফেলে হাতির দলকে তাড়ানোর ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *