মাঝরাতে মাদ্রাসা পড়ুয়া ভাগ্নিকে অশ্লীল ভিডিও দেখিয়ে ধর্ষণচেষ্টা! আটক লম্পট খালু

মাঝরাতে মাদ্রাসা পড়ুয়া ভাগ্নিকে অশ্লীল ভিডিও দেখিয়ে ধর্ষণচেষ্টা! আটক লম্পট খালু

রাঙা প্রভাত ডেস্কঃ অষ্টম শ্রেণির এক মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে তার আপন খালুর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় পুলিশ শওকত মিয়া (৪৫) নামে অভিযুক্ত ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে।
গত ২৯ মার্চ রাতে ধর্ষণচেষ্টার এ ঘটনাটি ঘটে। পরে এ ব্যাপারে মাদরাসাছাত্রীর বাবা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করলে শওকতকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ঘটনার স্থান, নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলা। মামলার প্রাথমিক অভিযোগসুত্র মতে, ঘটনার রাতে অভিযুক্ত খালু মাদ্রাসাছাত্রীকে ঘুম থেকে ডেকে উঠিয়ে মোবাইল ফোনে জরুরী কিছু দেখানোর ছলে একসময় অশ্লীল ভিডিও দেখানো শুরু করে! কিছু বুঝে উঠার আগেই লম্পট খালু ধর্ষণ চেষ্টা চালায়। তবে কৌশলে সেসময় নিজেকে রক্ষা করে ঘটনার শিকার মাদ্রাসা ছাত্রী।
মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, গত ২৯ মার্চ রাতে মামলার বাদীর মেয়ে মাদরাসাছাত্রীর সঙ্গে বিবাদীর মেয়ে আপন খালাতো বোন হওয়ায় শবে বরাতের নামাজ আদায় করে বিবাদীদের ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। রাত সাড়ে ১২টার দিকে শওকত মিয়া ওই ছাত্রীকে ঘুম থেকে জাগিয়ে অশ্লীল ভিডিও দেখিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। পরে মাদরাসাছাত্রী বিষয়টি তার বাবা-মাকে জানালে এ ঘটনায় ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে বন্দর থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ ঘটনায় বুধবার (৭ এপ্রিল) পুলিশ ওই ছাত্রীর খালু শওকত মিয়াকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠিয়েছে। সেইসঙ্গে ভুক্তভোগীকেও জবানবন্দির জন্য আদালতে পাঠায়।
নারায়ণগঞ্জ বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকার্তা (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

চট্টগ্রাম নগরের পাঁচলাইশ থানা এলাকার এক কলেজছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়ানোর অভিযোগে দুই কলেজ ছাত্রকে আটক করেছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) কাউন্টার টেররিজম ইউনিট।এছাড়াও এ ঘটনায় জড়িত আরও এক প্রহরীর ছেলেকে আটক করার চেষ্টা চলছে বললে জানিয়েছে পুলিশ।
বুধবার (৭ এপ্রিল) নগরের পাঁচলাইশ ও নন্দনকানন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়েছে। আটক ছাত্ররা হলেন- চট্টগ্রাম ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটির ছাত্র অভিষেক সেন শর্মা (১৯) ও সেন্টপ্লাসিড স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্র আদিত্য বড়ুয়া (১৮)। তারা আপন খালাতো ভাই বলে জানা গেছে।

পুলিশ জানায়, গত ২৯ মার্চ ভুক্তভোগী কলেজছাত্রীর কাপড় পাল্টানোর একটি ভিডিও তারই ফেসবুক মেসেঞ্জার ও হোয়াটস অ্যাপে পাঠান অভিষেক। এরপর ভিডিওটি অন্যান্য ওয়েবসাইটে আপলোড করার হুমকি দিয়ে তিনি টাকা দাবি করেন। বিষয়টি ভুক্তভোগীর পরিবার পুলিশের কাছে জানালে পাঁচলাইশ এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিষেককে আটক করে পুলিশ।

" class="prev-article">Previous article

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *