জ্বীনের রানীর দুই বছরের কারাদণ্ড

জ্বীনের রানীর দুই বছরের কারাদণ্ড

বিশেষ প্রতিনিধি।। রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলায় দীর্ঘদিন ধরে জ্বীনের রানি সেজে বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা করার নামে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিতেন রাহেলা বেগম (৫০) নামে এক নারী। তার বিরুদ্ধে আদালতে প্রতারণার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এই কথিত জ্বীনের রানিকে দুই বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে। সেইসঙ্গে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ৩ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেন আদালত।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে এ রায় ঘোষণা করেন রাজশাহীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল ইসলাম। রাহেলা বেগমের বাড়ি মোহনপুর উপজেলার পোল্লাপাড়া ইউনিয়নের বড়াইল গ্রামে। তিনি মো. ছুইপ সোনারের স্ত্রী।

আদালত সূত্রে জানা যায়, আসামী রাহেলা বেগম নিজেকে জ্বীনের রানি বলে দাবি করতেন। বিভিন্ন মানুষকে তাবিজ-কবজের দ্বারা ভুয়া চিকিৎসাও দিতেন। দীর্ঘদিন ধরে মোহনপুর ও আশপাশের বিভিন্ন লোককে চিকিৎসা করার নামে হাতিয়ে নিয়েছেন মোটা অংকের টাকা। অসুখ না ভালো হওয়ায় বেশ কয়েকজন রোগী অভিযোগ তোলেন তার বিরুদ্ধে। অসুখ না সারায় ভূক্তভোগীরা টাকা ফেরত চাইলে জ্বীন দিয়ে তাদের মেরে ফেলার হুমকি দেন তিনি। এরই প্রেক্ষিতে একজন ভুক্তভোগী তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন আদালতে।
পরিশেষে রাষ্ট্রপক্ষের ১৩ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহন ও জেরার পরিপ্রেক্ষিতে রাহেলা বেগমের  বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় দন্ডবিধির ৪২০ ধারায় তাকে কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়। সেই সঙ্গে ৫ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরো ৩ মাসের সশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করা হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *