‘সালাম’ না দেওয়ায় হাসানকে খুন,গোয়েন্দা পুলিশের তথ্য

‘সালাম’ না দেওয়ায় হাসানকে খুন,গোয়েন্দা পুলিশের তথ্য

বিশেষ প্রতিনিধি।। ডিএমপির গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) যুগ্ম কমিশনার মো. মাহবুব আলম বলেছেন, ‘সালাম’ না দেওয়াকে কেন্দ্র করে রাজধানীর মুগদার মান্ডা এলাকায় হাসান মিয়াকে (১৬) খুন করেছে কিশোর গ্যাং ব্যান্ডেজ গ্রম্নপের সদস্যরা। এ ঘটনায় জড়িত ওই গ্যাংয়ের সাত সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার গ্যাংয়ের সদস্যরা অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় তাদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

সোমবার দুপুর ১টার দিকে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান তিনি।

গ্রেপ্তার ‘ব্যান্ডেজ’ গ্রুপের সদস্যরা অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় তাদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।
এর আগে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর মুগদার মান্ডা এলাকায় কিশোর গ্যাং ব্যান্ডেজ গ্রম্নপের সদস্যরা হাসান নামে এক কিশোরকে ছুরিকাঘাত ও কুপিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় মুগদা থানায় একটি মামলা দায়ের করে ভুক্তভোগীর পরিবার। নিহত হাসান একটি প্রিন্টিং প্রেসের কর্মচারী হিসেবে কাজ করতো। পরিবারের সঙ্গে মান্ডার সাবেদ আলীর বাসায় ভাড়া থাকতো সে। গ্রামের বাড়ি কুমিলস্নার দেবিদ্বার উপজেলার ভারারা গ্রামে। তিন ভাই ও এক বোনের মধ্যে তৃতীয় হাসান।
ঘটনার পর গত রোববার মুগদাসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাং ব্যান্ডেজ গ্রম্নপের সাত সদস্যকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।
ডিবির যুগ্ম কমিশনার মো. মাহবুব আলম বলেন, মূলত সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বে ব্যান্ডেজ গ্রম্নপের সদস্যরা হাসানকে খুন করেছে। হাসান তাদের সালাম দেয়নি বলে ক্ষুব্ধ হয়ে তারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। ওই কিশোর গ্যাং গ্রম্নপের নেতৃত্বে ছিল তানভীর। তার সঙ্গে আরও সাত-আটজন জড়িত। মূলহোতা তানভীরসহ সাতজনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের মতিঝিল বিভাগ।
তিনি বলেন, হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত আরও কয়েকজনের নাম পাওয়া গেছে। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *